ঢাকাবুধবার , ৪ আগস্ট ২০২১
  1. ইসলাম
  2. ছোট গল্প
  3. বই
  4. বিজ্ঞান-ও-প্রযুক্তি
  5. বিনোদন
  6. বিশ্বকোষ
  7. ব্যবসা
  8. ভিডিও
  9. ভ্রমণ
  10. মার্কেটিং
  11. মোটিভেশনাল স্পিচ
  12. স্বাস্থ্য বিষয়ক
আজকের সর্বশেষ সবখবর

প্রবাসী কল্যান ব্যাংক ঋণ নিবেন যেভাবে

প্রতিবেদক
Yeasin Ahmad
আগস্ট ৪, ২০২১ ১:২০ অপরাহ্ণ
Link Copied!

বাংলাদেশের অর্থনীতির চাকা সচল রাখতে সবচেয়ে বেশি ভূমিকা রাখছে প্রবাসের বাংলাদেশের শ্রমিকদের পাঠানো বৈদেশিক মুদ্রা বা রেমিট্যান্স। কিন্তু যতই দিন গিয়ে দিন আসছে, ততই যেন প্রবাসীদের  মনে শরতের মেঘলা আকাশের মতো বিষাদের কালো মেঘ জমা হয়ে ঘন বর্ষণের সৃষ্টি হচ্ছে। এখন প্রবাসীদের সব সময় মনে প্রশ্ন জাগে, আসলে যে দেশের উন্নয়নে নিজেদের অকাতরে বিলিয়ে দিচ্ছি  আমাদের ভবিষৎ কতোটা আলোকিত ? আজকের আর্টকেল মুলত প্রবাসীরা কিভাবে ব্যাংক থেকে লোন নিবেন? এবং কিভাবে লোন নিতে কি কি শর্ত পুরণ করতে হবে।

প্রবাসীরা যে যে খাতের জন্য ঋণ নিতে পারবেনঃ

১) কৃষি ঋণ প্রকল্প। ২) মাঝারী ধরনের কৃষি নির্ভর শিল্প ঋণ প্রকল্প। ৩) মুরগীর খামার প্রকল্প। ৪) মৎষ চাষ প্রকল্প। ৫) বায়োগ্যাস প্লান্ট প্রকল্প। ৬) সৌর জ্বালানী খাত প্রকল্প। ৭) তথ্য প্রযুক্তি নির্ভর উদ্যোক্তা ঋণ প্রকল্প। ৮) একটি বাড়ী একটি খামার প্রকল্প। ৯) নারী উদ্যোক্তাদের জন্য ক্ষুদ্র ও কুটির শিল্প প্রকল্প। ১০) গরু মোটা তাজাকরন প্রকল্প। ১১) দুদ্ধ উৎপাদনকারী খামার প্রকল্প।

ঋণ নেয়ার জন্য প্রাবাসীদের প্রাথমিক যোগ্যতাঃ

১. পূণর্বাসন ঋণ প্রাপ্তির জন্য আবেদনকারীকে বিদেশ প্রত্তাগত হতে হবে এবং তার বৈধ কাগজ-পত্র থাকতে হবে।
২. পূণর্বাসন ঋণ প্রাপ্তির জন্য আবেদকারীকে প্রবাস প্রত্যাগমনের ০৫ (পাঁচ) বছরের মধ্যে আবেদন করতে হবে।
৩. আবেদনকারীর বৈধ ব্যবসা বা প্রকল্পটি প্রাথমিকভাবে শুরু করার পর আবেদন করতে হবে।
৪. আবেদনকারীর আর্থিক সংগতি যেমনঃ- জামানতের জন্য গ্যারান্টিকৃত সম্পত্তি নিজ নামে / পিতার নামে থাকতে হবে।
৫. ঋণের জন্য প্রয়োজনীয় কাগজপত্রাদিসহ জীবন বৃত্তান্ত প্রদান করার পর তা কর্তৃপক্ষ কর্তৃক গৃহিত হলে ঋণ প্রদান করা হবে।
৬. কর্তৃপক্ষ কর্তৃক প্রাথমিক আবেদন গৃহিত হলে ঋণ সম্পর্কিত মূল ফরমটি পূরণ করে জমা দিতে হবে।
৭. ঋণ গ্রহণকালে জামানতকৃত সম্পত্তির মালিকানার দলিলাদিসহ অন্যান্য কাগজপত্র প্রদান করতে হবে।

ঋণ গ্রহণের জন্য যা যা ডুকুমেন্ট লাগবেঃ

আপনি প্রবাস প্রত্যাগত হলে আপনাকে স্বাবলম্বী করতে প্রবাসী কল্যাণ ব্যাংক সহজ শর্তে পূণর্বাসন ঋণ প্রদানে প্রস্তুত।
এ ঋণ পেতে হলে নিম্মলিখিত কাগজপত্র প্রয়োজনঃ-

১. আবেদনকারীর আবেদন পত্রসহ পারিবারিক তথ্য সংবলিত জীবন বৃত্তান্ত ।
২.আবেদনকারীর সদ্য তোলা ০৩ (তিন) কপি সত্যায়িত ছবি, ভোটার আইডি কার্ডের সত্যায়িত ফটোকপি, বর্তমান ঠিকানা এবং স্থায়ী ঠিকানা সংবলিত পৌরসভা / ইউনিয়ন পরিষদ কর্তৃক প্রদত্ত সার্টিফিকেট এর সত্যায়িত ফটোকপি।
৩.হাল নাগাদ ট্রেড লাইসেন্সের ফটোকপি।
৪.প্রকল্পের বিস্তারিত বিবরণ সহ প্রকল্পের ঠিকানা।
৪. প্রকল্পের স্থান উল্লেখ করতে হবে।
৫.জমির দলিলপত্রাদি
৬.আবেদনকারীর জামিনদারদের প্রত্যেকের সদ্য তোলা ২ কপি করে সত্যায়িত ছবি, ভোটার আইডি কার্ডের সত্যায়িত ফটোকপি, বর্তমান ঠিকানা এবং স্থায়ী ঠিকানা সংবলিত পৌরসভা / ইউনিয়ন পরিষদ সার্টিফিকেট এর সত্যায়িত ফটোকপি।
৭.যে সকল ব্যাক্তি জামিনদার হবেন তাদের নিম্নবলিখিত কাগজপত্র।
৮.বিদেশ থেকে প্রত্যাগমণ সংক্রান্ত যাবতীয় কাগজপত্রের সত্যায়িত ফটোকপি।
৯.আবেদনকারীর কর্ম অভিজ্ঞতার সনদপত্র।
১০.আর্থিকভাবে ও সামাজিক ভাবে প্রতিষ্ঠিত (০২) জন পরিচয় দানকারীর নাম ও ঠিকানা ফোন নং সহ ।
১১.ঋণ সংক্রান্ত তথ্যাবলীঃ ক) ব্যক্তিগত ঋনের বিবরণ। ( অন্য কোন ঋণ থাকলে তার বিবরণী) খ) কোন সংস্থা, এনজিও, ব্যাংক হতে ঋণ নিয়ে থাকলে তার বিবরণ।
১২.ঋণ খেলাপি কি না ( হ্যাঁ/ না )
১৩.ঋণ ফেরত দানের হলফনামা।

 ঋণ পরিশোধের ও চার্জ পরিশোধ করার নিয়মাবলীঃ

সুদের হার শতকরা ০৯ (নয়) টাকা।
প্রকল্পের ধরন অনুযায়ী ঋণের গ্রেস পিরিয়ড নির্ধারিত হবে।

Facebook Comments