ঢাকাশনিবার , ২ মে ২০২০
  1. ইসলাম
  2. ছোট গল্প
  3. বই
  4. বিজ্ঞান-ও-প্রযুক্তি
  5. বিনোদন
  6. বিশ্বকোষ
  7. ব্যবসা
  8. ভিডিও
  9. ভ্রমণ
  10. মার্কেটিং
  11. মোটিভেশনাল স্পিচ
  12. স্বাস্থ্য বিষয়ক
আজকের সর্বশেষ সবখবর

পড়ো | ওমর আল জাবির | বই রিভিউ

প্রতিবেদক
Yeasin Ahmad
মে ২, ২০২০ ১০:৪৩ পূর্বাহ্ণ
Link Copied!

মোহাম্মদ আলামিন হৃদয়:
পড় তোমার প্রভুর নামে যিনি সৃষ্টি করেছেন।
[সূরা ‘আলাক্ব/রক্তপিন্ডঃ আয়াত-১]
কোন ইসলামী জ্ঞানসম্পন্ন মানুষকে যদি প্রশ্ন করা হয়, আচ্ছা ভাই বলুনতো! নবী মুহাম্মদ (সাঃ) এর প্রতি আল্লাহর প্রথম নির্দেশ কী ছিল? সিজদাহ? তিনি অব্যশ্যই উত্তর দিবেন, না ভাই সিজদাহ না। নবী মুহাম্মদ (সাঃ) প্রতি আল্লাহর প্রথম নির্দেশ ছিল “পড়” তাহলে কোন বই পড়তে বলেছিলেন? যেই বই পড়ে হেদায়েতের আলোয় আলোকিত হয়েছিল সাহাবীগন, তাবেয়ীগন তাবে-তাবেয়ীগন সালাফন পরবর্তী যুগে হকপন্থী উলামায়ে কেরামগন।
এটি হচ্ছে পৃথিবীর বুকে সর্বশ্রেষ্ঠ গ্রন্থ আল-কুরআন। এটি আল্লাহর পক্ষ হতে এমন এক  গ্রন্থ যার ব্যাপারে বিন্দু পরিমানে সংশয় নেই।
উমর আল জাবিরের “পড়ো” বইটি সেই সর্বশ্রেষ্ঠ গ্রন্থ আল-কুরাআন নিয়ে। পড়ো বইটিকে আমরা ছোটখাটো তাফসীর গ্রন্থ বলতে পারি।
বইটিতে প্রতিফলিত হয়েছে কিছু আয়াতের ব্যাখ্যা। যা পাঠক হৃদয়কে চিন্তা ভাবনার খোরাক যোগাবে। আরো রয়েছে কুরআনের আলোকে অনুপ্রেরণা , যা কোন পাঠকের অশান্ত মনকে শান্ত করতে সাহায্য করবে।
কিন্তু আমরা তো  সবাই পবিত্র কুরআন পড়ি। কিন্তু আমরা কি পবিত্র কুরআনের আল্লাহর দেয়া অসাধারন বার্তা গুলো ঠিকভাবে  অনুধাবন  করতে পারি? “পড়ো” এই বইটি পবিত্র কুরআন কে নতুনভাবে বোঝার ও অনুধাবন করার প্রয়াস যোগাবে।
অন্যদিকে, যদি কোন বিবেকবান মানুষ কে প্রশ্ন করা হয়। কোন বইটি একটা জাতিকে আমুল পরিবর্তন করেছে? কোন বইটি একটা অ-পড়ুয়া জাতিকে পড়তে শিখিয়েছে ? তিনি নিশ্চয় উত্তর দিবেন যে, সেই বইটি হলো পবিত্র কুরআন।
“পড়ো” বইটি  সেই পবিত্র কুরআন বুঝে পড়ার গুরুত্ব বাড়িয়ে দিবে।  বইটির কিছু সুন্দর দিক হচ্ছে যে, বাস্তবধমী উদাহরণ এর ব্যবহার। যেমন: কীভাবে আমরা কুর’আন ভুলভাবে ব্যাখা করে নিজেদের সুবিধামত করে কাজে লাগাচ্ছি। বইটি  আমাদের বুঝিয়ে দিবে  নিজেদের ধর্ম সম্পর্কে অজ্ঞতা,আরো বুঝিয়ে দিবে যে আমরা কুরআনের আয়াত গুলো কিভাবে নিজেদের স্বার্থে ব্যবহার করছি। এবং যে আয়াত গুলো আমাদের বিপক্ষে যায় তা কিভাবে বাতিল করে দিচ্ছি।
বইটিতে আরো ব্যাখ্যা করা হয়েছে, (macro evolution ) যার পক্ষে কোনোই প্রমাণ এখন পর্যন্ত পাওয়া যায়নি, কিন্তু বিজ্ঞানীদের বিবর্তন নিয়ে এতই দৃঢ় ‘ঈমান’ যে ডারউইনের বিবর্তনবাদ ‘থিওরি’কে তারা স্কুলের কারিকুলামের অন্তর্ভুক্ত করে দিয়েছে। কোটি কোটি ছেলে-মেয়ে স্কুলে শিখছে যে ডারউইনের বিবর্তনবাদ একটি ফ্যাক্ট—প্রতিষ্ঠিত সত্য, এ নিয়ে কোনো সন্দেহ নেই। এবং কুরআনের আয়াতের অনুযায়ী,
আমরা কারো সাথে কিভাবে কথা বলব?
 কিভাবে আচরন করব?
কিভাবে রক্ষা করব পারিবারিক ও আত্নীয়তার সম্পর্ক? আমরা কি বোকার মত বিশ্বাস করব? কারা শেষ পর্যন্ত সফল হবে? ইত্যাদি অনেক বিষয়ে।
শেষকথাঃ
যেই বইটি একটি অ-পড়ুয়া জাতিকে পড়তে শিখিয়েছে সেই বইটিকে নিয়ে লেখা বই গুলো কি আমাদের পড়া উচিত না? অব্যশ্যই উচিত। তাই পড়ে ফেলুন “পড়ো” বইটি।
এতো অসাধারন বইটি আজই সংগ্রহ করে পড়তে বসে পড়ুন।
বই- পড়ো।
লেখক- ওমর আল জাবির।
প্রকাশনী-সমকালীন প্রকাশন।
ধরন- কুরআন বিষয়ক আলোচনা।
বিক্রিত মুল্য- ২২০
পাঠকদের সুবিধার জন্য নিচে সুচিপত্র যুক্ত করা হলো।
সূচিপত্রঃ
আমার কাজে লাগবে এমন কিছু কুরআনে আছে কি ? ১০
সূরা ফাতিহা: আমরা যা শিখিনি ১৫
তাঁর মতো আর কেউ নেই কুরআন পড়ে কোনো লাভ হবে না, যদি…৪১
যারা অদেখা জগতের কিছু ব্যাপার স্বীকার করে ৪৭
ওরাই শেষ পর্যন্ত সফল হবে ৫৬
ওদের বলে লাভ নেই, ওরা বদলাবে না ৬৯
কিন্তু তারা মোটেও কিছুই স্বীকার করে না ৭৪
আমরা কি বোকাদের মতো বিশ্বাস করব ৮০
চারদিকে বিভিন্ন গভীরতার অন্ধকার…৮৮
পৃথিবী বসবাসের জন্য আল্লাহর এক অনিন্দ্য সৃষ্টি ৯৬
যদি পারো তো বানাও এ রকম একটা সূরা ১০০
এ রকম কিছু আমরা আগেও পেয়েছিলাম ১০৪
এই উদাহরণ দিয়ে আল্লাহ কী বোঝাতে চান ১০৯
আপনি কীভাবে জীবন পেলেন ? ১১৮
সৃষ্টিজগতের শ্রেষ্ঠ সৃষ্টি ১২৭
কিন্তু কখনো এই গাছের কাছেও যাবে না ১৪০
আল্লাহর কাছ থেকে আমরা কী পেয়েছি ? ১৫০
একদিন প্রভুর সাথে দেখা হবেই ১৬৯
উপসংহার ১৮৩
Facebook Comments